ছবিঃ বোধিধারা পাবলিশিং বোর্ড

গত ১৮ আগস্ট রোজ শুক্রবার রাঙ্গামাটির বোধিপুর বন বিহারের দেশনায়তনে বোধিধারা পাবলিশিং বোর্ড এর এডহক কমিটির প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভাটিতে সভাপতিত্ব করেন পরম পূজ্য শ্রীমৎ সাধনানন্দ মহাস্থবির (বনভন্তে)’র শিষ্য বোধিপুর বন বিহারের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ জিনবোধি মহাথের। সম্বোধি ওয়েলফেয়ার সোসাইটি, ত্রিশরণ ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ এবং রাঙ্গামাটির বৌদ্ধ সাংস্কৃতিক একাডেমির হয়। এই সমন্বয় সভায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের সভাপতি সর্বশ্রী বাবু প্রকৃতি রঞ্জন চাকমা।

চাকমা ভাষা গবেষক বাবু শান্তি চাকমা, বিশিষ্ট সমাজকর্মী প্রতিভা চাকমা, চন্দ্রলাল চাকমা, ফুটন্ত চাকমা, ত্রিশরণ ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ এর সভাপতি বাবু পূর্ণচন্দ্র চাকমা প্রমুখ। পঞ্চশীল গ্রহণান্তর সভার কার্যক্রম সূচিত হয়। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বোধিধারা সম্পাদক, রাঙ্গামাটি বৌদ্ধ সাংস্কৃতিক একাডেমির পরিচালক এবং ত্রিশরণ ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সচিব সঞ্চয় চাকমা বাবু।

ত্রিশরণ ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ এর সভাপতি বাবু পুর্ণ চন্দ্র চাকমার সঞ্চালনায় পরিচিত পর্ব শেষে বোধিধারা পাবলিশিং বোর্ড এর ১৭ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ নির্বাহী পরিষদ গঠন করা হয়। বোর্ডটির গঠন তন্দ্র প্রণয়ন পূর্ব্বক অত্র সভায় গৃহীত প্রস্তাবাবলীর পুনরালোচনার্থে সম্বোধি ওয়েলফেয়ার সোসাইটির পরবর্তী সভায় উপস্থাপনের সিদ্ধান্ত ও গৃহীত হয়। সভায় ত্রৈমাসিক বোধিধারা প্রকাশনার ওপর গুরুত্বারোপ করে উপস্থিত বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ তাদের বক্তব্য প্রদান করেন। এক প্রশ্নের জবাবে বলা হয় বিগত ২০০৭ সাল থেকে এটি নিয়মিত প্রকাশিত আসছে বটে। ২০১৬ সালের পর পর দু’টি সংখ্যার প্রকাশ বিলম্বিত হয়। যা দরুন পাঠক সাধরণের মধ্যে গুজব ছড়ানো হয় যে, বোধিধারা প্রকাশনা নাকি নিবৃত হয়েছে। বোধিধারা প্রকাশনায় এবং রাঙ্গামাটি বৌদ্ধ সাংস্কৃতিক একাডেমিকে উৎসাহিত করে দেশনা প্রদান করেন বোধিপুর বনবিহারের আবাসিক ভিক্ষু ধর্মরত্ন।

অত্র বিহারের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ জিনবোধি মহাথের মহোদয় কথায় ও কাজে মিল রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে ধর্মোপদেশ প্রদানান্তর সভার কার্যক্রমের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।